বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:৩৮ অপরাহ্ন১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১২ই রজব, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশঃ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
অবশেষ খাঁসিয়াদের খাঁচায় এসআই আকবর

অবশেষ খাঁসিয়াদের খাঁচায় এসআই আকবর

সিলেটের বার্তা ডেস্ক:: অবশেষে খাসিয়াদের খাঁচায় আটক হলেন আলোচিত রায়হান হত্যার মূল হোতা এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া।

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ডোনা সীমান্ত থেকে তাকে আটক করেন স্থানীয় খাসিয়া জনতা। প্রথমে তারা আকবরের হাতপা বেঁধে রাখেন। পরে পুলিশকে খবর দিলে সিলেট জেলা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে।

আজ সোমবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ২টার থেকে জেলার কানাইঘাট উপজেলার ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. লুৎফর রহমান জানান, ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে দুপুরে ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে এসআই আকবরকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে নিয়ে বিকেল ৫টায় সিলেট পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হবে।

গত ১১ অক্টোবর ভোর রাতে রায়হানকে পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করা হয়। পরে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সকাল ৭টা ৫০ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়।

রায়হান ছিনতাইকালে গণপিটুনিতে মারা গেছেন পুলিশের তরফ থেকে দাবি করা হলেও নিহতের পরিবার ও স্বজনদের অভিযোগ ছিল পুলিশ ধরে নিয়ে ফাঁড়িতে নির্যাতন করে তাকে হত্যা করেছে।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরিবারের অভিযোগ ও মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের তদন্ত দল ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হানের মৃত্যুর সত্যতা পেয়ে জড়িত থাকায় ইনচার্জ আকবরসহ চার পুলিশকে বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করেন। বরখাস্তকৃত পুলিশ সদস্যরা হলেন- বন্দরবাজার ফাঁড়ির কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, তৌহিদ মিয়া ও টিটু চন্দ্র দাস। প্রত্যাহার হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন- সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আশেক এলাহী, এএসআই কুতুব আলী ও কনস্টেবল সজিব হোসেন। ঘটনার পর অন্য ছয়জন পুলিশ হেফাজতে থাকলেও আকবর পলাতক ছিলেন।

 

https://fb.watch/1ESMVaMq-M/

শেয়ার করুন
  •  
  • 196
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত