মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৪:০৯ অপরাহ্ন২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

২৪শে রজব, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশঃ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
আজ সিলেট আসছে করোনার ভ্যাকসিন, যারা দিতে পারবেন না

আজ সিলেট আসছে করোনার ভ্যাকসিন, যারা দিতে পারবেন না

আজ শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) বিকেলে বহুল কাঙ্ক্ষিত করোনা ভাইরাস এর ভ্যাকসিন আসছে সিলেটে।

প্রথম ধাপে ৩৭ কার্টুন ভ্যাকসিন পাচ্ছে সিলেট।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডাক্তার আনিসুর রহমান।

তিনি জানান, কোন তারিখে কোন জেলায় কার কাছে টিকা পৌঁছে দিতে হবে বেক্সিমকো-কে সেই নির্দেশনা স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে দেয়া হয়েছে। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আজ শুক্রবার টিকার চালানটি প্রথমে যাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া। সেখান থেকে হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার হয়ে সিলেট আসবে এবং এবং সিলেট থেকে যাবে সুনামগঞ্জে।

আজ বিকেলের দিকে সিলেটে টিকা এসে পৌঁছার কথা রয়েছে। সেগুলো রিসিভ করবেন সিভিল সার্জন ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক।

জানা গেছে, সিলেট বিভাগের জন্য প্রাথমিক অবস্থায় ৩৭ কার্টন ভ্যাকসিন আসবে। প্রথম পর্যায়ে ৪৯ হাজার ২০০ ডোজ টিকা পাচ্ছে সিলেট। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি সিলেটে শুরু হবে করোনা টিকাদান কার্যক্রম। ধারাবাহিকভাবে দেওয়া হবে এ ভ্যাকসিন।

সিলেট মহানগর এলাকায় ১২টি কেন্দ্রে এবং উপজেলা পর্যায়ে নির্দিষ্ট কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। টিকাদান কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নের লক্ষ্যে মহানগর ও জেলার জন্য দুটি কমিটি গঠন করে স্বাস্থ্য বিভাগ।

সিলেটে ভ্যাকসিন আসার পর ১৫ ক্যাটাগরির লোকজন পাবেন করোনা ভ্যাকসিন। এর মধ্যে সরকারি হাসপাতালে কোভিড-১৯ চিকিৎসায় জড়িত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী, বেসরকারি স্বাস্থ্যকর্মী, মুক্তিযোদ্ধা ও বীরাঙ্গনা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী, মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী, পৌর-সিটি কর্পোরেশনের সম্মুখসারির কর্মকর্তা-কর্মচারী, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিদ্যুৎ-পানি-গ্যাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, কবরখনন ও মৃত ব্যক্তির সৎকারকারীরা রয়েছেন এর আওতায়।

টিকাদানে সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে চারটি ও সদর হাসপাতালে আটটি কেন্দ্রের মাধ্যমে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। টিকাদানে কেন্দ্র প্রতি থাকবেন দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী ও চারজন স্বেচ্ছাসেবক। টিকাদান পরবর্তী পর্যবেক্ষণের জন্য সাত সদস্যের মেডিকেল টিম থাকবে।

সিসিক সূত্রে জানা গেছে, নগরীতে টিকা দানে প্রতিটি কেন্দ্রে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী ও চারজন স্বেচ্ছাসেবক থাকবেন। টিকাদান পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে তার নেতৃত্বে চিকিৎসকের সাতজনের একটি টিম থাকবে।

এদিকে, সবাই এ ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে পারবেন না। ভ্যাকসিন গ্রহণের ক্ষেত্রে কিছু বিধি-নিষেধ রয়েছে। সিলেটে ৮ শ্রেণির মানুষ করোনা ভ্যাকিসন নিতে পারবেন না। তারা হচ্ছেন- ১) গর্ভবতী মহিলা। ২) শিশুদের বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন, এমন মায়েরা। ৩) আঠারো বছরের কম বয়েসি। ৪) কোনো ওষুধ, খাবার বা ভ্যাকসিনে যাদের অ্যালার্জি আছে। ৫) যাদের করোনা হয়েছে বা যারা এমনিতেই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি (তারা সুস্থ হয়ে ওঠার চার থেকে আট সপ্তাহ পর নিতে পারবেন)। ৬) যাদের রক্তক্ষরণ বা রক্তজমাট বাধার রোগ আছে। ৭) যদি কেউ অন্য রোগের জন্য টিকা নিয়েছেন (তারা দুই সপ্তাহ পরে নিতে পারবেন)। ৮) শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যাদের কম বা অন্য একাধিক ওষুধ যারা খান।

এই ৮ ক্যাটাগরির মানুষকে করোনা ভ্যাকসিন নিতে নিষেধ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন
  •  
  • 58
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত