মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ০৮:০৫ অপরাহ্ন১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

৪ঠা জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশঃ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
কমলগঞ্জে ওজনে কারচুপি: ক্রেতাদের নাভিশ্বাস

কমলগঞ্জে ওজনে কারচুপি: ক্রেতাদের নাভিশ্বাস

কমলগঞ্জ থেকে মো. মালিক:: মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন মাছের বাজারে ওজনে কারচুপির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে ক্রেতাদের বাক-বিতন্ডা হাতাহাতির ঘটনা ঘটছে প্রায় প্রতি নিয়ত। বিশেষ করে উপজেলার ভানুগাছবাজারে বিভিন্ন দোকানে দাড়ি পাল্লার পরিবর্তে ডিজিটাল পাল্লা ব্যবহার করা হলেও ওজনের কারচুপি রোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

সেই নিয়ম নীতির প্রতি সম্পূর্ণ বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে কিছু অসাধু মাছ ব্যবসায়ী সেই পুরানো যুগের দাঁড়িপাল্লা গুলো ব্যবহার করছেন যেন ক্রেতাদের ঢোকানোর জন্যই ।

এর মাঝে ব্যাপক কারচুপির ব্যবস্থা রয়েছে। ক্রেতারা অভিযোগ করেন, এক কেজি মাছ এর মধ্যে প্রায় দুই থেকে আড়াই শ গ্রাম মাছ কম দেয়া হয় যা তারা পরবর্তীতে মাপলে দেখা যায়। এ বিষয়ে কিছুটা নজরদারি করলে দেখা যায় এক দোকানের ওজন পাথর এর সাথে মিলছে না অন্য দোকানের পাথর।

অভিযোগ রয়েছে মাছের আড়ত হতে সঠিক পাথর দিয়ে মাছ মাপ দিয়ে আনা হলেও মাছ পাইকারি দরে বিক্রি করা হয় অর্ডার কৃত বানানো পাথরে।

ক্রেতা আলাউদ্দিন, জামাল মিয়া, সুজন মিয়াসহ কয়েকজন জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভানুগাছ বাজারে মাছ কিনতে গেলে

বাজারের মাছ ব্যবসায়ীরা হাত পাল্লায় মাছ মেপে পলিথিনে মাছ তুলে পলিথিনের মুখ বন্ধ করে দেয়। পরে তিনারা সন্দেহ হলে অন্য দোকানে মাফ দিয়ে দেখেন কেজিতে ১০০ গ্রাম কম ১৫০ গ্রাম কম আছে । পরে মাছ ব্যবসায়ীদের কাছে নিয়ে আসলে কেউ বলেন, তারাতারি করে মাফ দিতে গিয়ে ভুল হয়েছে।

আবার কেউ অস্বীকার করলে তাদের সাথে কথাকাটি করে বাক-বিতন্ডার ঘটনা ঘটে।

তাই ক্রেতাদের দাবি অবিলম্বে এসব মাছ বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হউক।তাহলে সাধারণ ক্রেতাদেরকে আর ঠকাতে পারবেনা।

শেয়ার করুন
  •  
  • 44
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত