বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৯:০৬ অপরাহ্ন৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
সিলেট চারটি বিভাগ ও সকল উপজেলা  উপজেলা এবং বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আবেদন পাঠাতে আপনাকে যা করতে হবে : • ছবিসহ জীবন বৃত্তান্ত পাঠাতে হবে আমাদের ই মেইলে। ই-মেইল: sylheterbarta24.com@gmail.com • সিভি অবশ্যই নিজের ব্যক্তিগত মেইল থেকে পাঠাতে হবে। কারণ যে মেইল থেকে সিভি পাঠাবেন পত্রিকা থেকে সেই মেইলেই রিপ্লাই দেয়া হবে। •ই-মেইল পাঠাতে বিষয় বস্তু অর্থাৎ Subject–এ লিখতে হবে কোন জেলা/ উপজেলা/ ক্যাম্পাস প্রতিনিধি। •আবেদনকারীকে সর্বনিন্ম এইচএসসি পাশ হতে হবে। •পরিশ্রমী, মেধাবী এবং আগ্রহী অভিজ্ঞ/নতুনদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। •নিউজের পাশাপাশি প্রতিনিধিদের পত্রিকার আয়ের একমাত্র উৎস বিজ্ঞাপন সংগ্রহেও মনোযোগী হতে হবে। •প্রার্থীদের মধ্যে থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত জেলা/উপজেলা/ক্যাম্পাস প্রতিনিধিদের নিয়মিত সম্মানী বাবদ প্রতিনিধিদের নিজের পাঠানো বিজ্ঞাপনের আয়ের ৫০% বিজ্ঞাপনের বিল পরিশোধের সাথে সাথেই দেয়া হবে। বিজ্ঞাপন না দিলে সিলেটের বার্তা কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার সম্মানী প্রদান করবে না। •নিজেদের প্রকাশিত নিউজ অবশ্যই নিজের ফেসবুকে শেয়ার করতে হবে একই সঙ্গে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমেও শেয়ার করতে হবে। •অবশ্যই অফিস থেকে দেয়া এ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করতে হবে। • নিউজ অবশ্যই ইউনিকোড ফন্টে লিখতে হবে। সাথে অবশ্যই নিউজ সংশ্লিষ্ট ছবি পাঠাতে হবে। • চূড়ান্ত নিয়োগের পর আইডি কার্ড প্রদান করা হবে। বি:দ্র: সিলেটের বার্তা ২৪.কম অনলাইন নিউজ পোর্টাল কোন গ্রুপ/কোম্পানীর অর্থায়ন বা স্পন্সর দ্বারা পরিচালিত নয়। নিজস্ব আয়ে অনলাইন পত্রিকা পরিচালিত হয়। তাই সিলেটের বার্তাকে নিজের পত্রিকা ভাবতে পারলেই আবেদন করবেন।  
সংবাদ শিরোনাম :
কোম্পানীগঞ্জ-ভোলাগঞ্জের পরিত্যক্ত রোপওয়ে পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনা হবে সিলেটে হবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ের ৩টি ম্যাচ, সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে এসএমপি দোয়ারাবাজারে পিআইসি সভাপতির গর্ত কেড়ে নিল বৃদ্ধের প্রাণ জামিয়া আঙ্গুরার কৃতি ছাত্রদের বৃত্তি প্রদান করল আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অস্ট্রেলিয়ায় মধ্যাকাশে মুখোমুখী দুই বিমান, নিহত ৪ মানব পাচার মামলায় মাধবপুরের কাউন্সিলর গ্রেফতার দক্ষিণ সুরমা ও জকিগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে আটক ২ সিলেটে যাত্রীবাহী বাস আটকে ডাকাতি, স্বর্ণালঙ্কারসহ নগদ টাকা লুট তাহিরপুরে পতাকাবৈঠকে চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচার নিয়ে আলোচনা মরা গাঙে রূপ নিয়েছে সুরমা নদী
মেলায় লেগেছে ফাগুনের রঙ

মেলায় লেগেছে ফাগুনের রঙ

সিলেটের বার্তা ডেস্ক:: একুশের সাথে ফাগুনের দেখা হয় নি কখনো। তবে মেলায় দেখা মিলিছে ফাগুনের।

পহেলা ফাল্গুন ছিল ১৩ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু বাংলা বর্ষপঞ্জি সংশোধনের পর তা পিছিয়েছে একদিন। কিন্তু ঋতুরাজকে বরণ করে নিতে আগেভাগেই সেজেছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বইমেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে দেখা যায়, মেলায় আসা তরুণ-তরুণীদের পরনে বাসন্তী রঙের পোশাক। কারও এক হাতে বই, আর অন্য হাত বন্দি প্রিয় মানুষের হাতে।

বিকেলে অমর একুশে গ্রন্থমেলার দুয়ার খুলতেই প্রকৃতির রঙে নিজেদের সাজিয়ে নেওয়া পাঠক-দর্শনার্থীরা প্রবেশ করে মেলা চত্বরে। বসন্ত না এলেও তার আগমনী বার্তায় মেলায় লেগেছিল ফাল্গুনের রঙ। মেলাজুড়ে যেদিকেই চোখ যায়, শুধুই হলুদ আর বাসন্তী রঙের সমারোহ। শাহবাগ মোড়, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস, টিএসসি, চারুকলার বকুলতলা, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, রবীন্দ্র সরোবরসহ রাজধানীর সর্বত্রই দেখা যায় ফাগুনের রঙ। বাসন্তী সাজের আনন্দে মেতে ওঠে তরুণ-তরুণীর মন।

মেলায় জনস্রোত দেখে খুশি প্রকাশকরাও। তাদের মধ্যেও বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। তাদের ভাবনা, অতীতের যে কোনো বারের থেকে বই বিক্রির পরিমাণ এবার বেশি হবে। সময় প্রকাশনের স্বত্বাধিকারী ফরিদ আহমেদ বলেন, এখন থেকে যে ভিড় হচ্ছে, তা মেলার শেষ দিন পর্যন্ত দেখা যাবে।
মেলা ঘুরে দেখা যায়, গোটা মেলা চত্বরজুড়েই ছিল ফাল্গুনের রঙ। শীতের শুষ্কতাকে বিদায় করে, সজীবতার আহ্বান জানিয়ে বইপ্রেমীরা এসেছেন বইমেলায়। তবে প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় গতকাল নবীন পাঠকরাই মুখর করে তুলেছেন মেলা প্রাঙ্গণ। বই কেনার পাশাপাশি আড্ডা-গল্পে মেতে ছিলেন সবাই।

মাথায় টায়রা ও বাসন্তী রঙের শাড়ি পড়ে মেলায় ঘুরতে আসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের তিন বান্ধবি। তাদের মধ্যে কথা হয় ফারজানা ইসলামের সঙ্গে। তিনি জানান, আগেও একবার এসেছি। তখন বই কিনেছিলাম। কিন্তু আজ এসেছি ঘুরতে। শীতের শেষ আর বসন্তের শুরুর সময়টার সাক্ষী হব।
মূল পর্বের অনুষ্ঠান: বৃহস্পতিবার ছিল একুশে গ্রন্থমেলার ১২তম দিন। মেলা চলে বেলা ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। মেলায় নতুন বই আসে ১৮০টি। বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় সুব্রত বড়–য়া রচিত বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সুজন বড়–য়া। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন লুৎফর রহমান রিটন এবং মনি হায়দার। লেখকের বক্তব্য প্রদান করেন সুব্রত বড়–য়া। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মোঃ আবু হেনা মোস্তফা কামাল এনডিসি।

প্রাবন্ধিক বলেন, আমাদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন বঙ্গবন্ধুর নীতি আদর্শ দর্শন জানা এবং চর্চা করা। নতুন প্রজন্মের নবীন-তরুণদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে যত আগ্রহ সৃষ্টি করা যাবে, তারা ততই দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সোনার বাংলা গড়ার পক্ষে এটা হতে পারে অত্যন্ত জরুরি উদ্যোগ। সুব্রত বড়–য়া রচিত বঙ্গবন্ধুর জীবনকথা গ্রন্থখানি কিছুটা হলেও আমাদের এগিয়ে দেবে সেই লক্ষ্যে। উক্তি-ভাষ্যে, আলোচনায় বঙ্গবন্ধুকে এখানে উপস্থাপন করা হয়েছে বিশ্বনেতার মানদন্ডে।

সূত্র: ইনকিলাব

Last Updated on

শেয়ার করুন
  • 69
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
সিলেটের বার্তা টুয়েন্টি ফোর ডটকম কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত
Developed By: Nagorik IT