বুধবার, ০৮ Jul ২০২০, ১১:০৫ অপরাহ্ন২৪শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

নোটিশঃ
★করোনাভাইরাস থেকে হেফাজত থাকতে পড়ুন-'লা-ইলাহা ইল্লা আনতা সুবহানাকা, ইন্নি কুনতু মিনায যোয়ালিমীন'।। ★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
রঙিন হবে সিলেট সিটি, প্রতি ওয়ার্ডের পৃথক রং

রঙিন হবে সিলেট সিটি, প্রতি ওয়ার্ডের পৃথক রং

সিলেটের বার্তা ডেস্ক:: রংধনুর সাত রংয়ে সাজবে সিলেট নগর। সিলেট সিটির প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের রং হবে আলাদা।

সিলেটকে দেশের প্রথম ডিজিটাল নগরীতে রূপ দিতে মূলত এই আয়োজন।

ডিজিটাল সিটি’র পথে এগিয়ে যাচ্ছে সিলেট। ইতিমধ্যে পুরো নগরীকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনার কাজ শুরু হয়েছে। এগিয়ে চলছে তারবিহীন নগরী গড়ার কাজও। এবার পর্যটন নগরী হিসেবে পরিচিত সিলেটকে ‘কালার কোডিং’য়ে বদলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সিলেট সিটি করপোরেশন।

সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের বিশেষ আগ্রহে সিটি করপোরেশন এ উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে। ‘কালার কোডিং’ বাস্তবায়িত হলে সিলেট নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডের বাসা-বাড়িসহ সব স্থাপনার রং হবে আলাদা। এতে বদলে যাবে সিলেট নগরীর রূপ।

সৌন্দর্য বর্ধনের এই বিশেষ উদ্যোগ পর্যটকদেরও আকৃষ্ট করবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তারমুক্ত নগরী গড়ার অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজার সড়কের বিদ্যুতের খুঁটি ও তার অপসারণ করা হয়েছে। মাটির নিচ দিয়ে নেওয়া হয়েছে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন। এরপর থেকে আলাদা রূপ পেয়েছে তারবিহীন ওই সড়কটি। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড বাস্তবায়িত এই প্রকল্প উদ্বোধন করতে এসে সিলেটে ‘কালার কোডিং’ বাস্তবায়নের আগ্রহের কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। এ ব্যাপারে সিটি করপোরেশনকে উদ্যোগ নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। এরপর সিটি করপোরেশন ‘কালার কোডিং’ নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করে। জানা গেছে, হজরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহর তারবিহীন সড়কের উভয় পাশের স্থাপনার রং বদলে দিয়ে ‘কালার কোডিং’য়ের কাজ শুরু করতে চাইছে সিটি করপোরেশন। শাহজালাল (রহ.)-এর মাজারের প্রধান ফটকের রং আকাশি ও সাদা হওয়ায় ওই আদলেই সব স্থাপনার রং করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। দরগার প্রধান ফটক থেকে মূল সড়ক পর্যন্ত রাস্তার উভয় পাশের বাসা-বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আকাশি ও সাদা রং দিয়েই সাজানো হবে
এ লক্ষ্যে স্থাপনাগুলোর মালিকদের সঙ্গে কথাও বলেছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘আমরা চাই সিলেটকে ব্যতিক্রমী স্মার্ট সিটি হিসেবে গড়ে তুলতে। এই লক্ষ্যে ইতিমধ্যে অনেকগুলো প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। ‘কালার কোডিং’ বাস্তবায়ন করা গেলে স্মার্ট সিটির দিকে আরেক ধাপ এগিয়ে যাবে সিলেট। ’

সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন

Last Updated on

শেয়ার করুন
  •  
  • 107
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

সিলেটের বার্তা পরিবারঃ

এম. এ কাদির-বালাগঞ্জ প্রতিনিধি

লিটন পাঠান-মাধবপুর প্রতিনিধি

 

©সিলেটের বার্তা ২৪ কর্তৃক সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।