শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৫:০৪ অপরাহ্ন৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

৪ঠা রমজান, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশঃ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা

লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা

লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আলোচনা

শিক্ষাঙ্গন বার্তা:: ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে লিডিং ইউনিভার্সিটিতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, ৭ মার্চ বাঙালি জাতির স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন।

১৯৭১ সালের এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক দেন। দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালন উপলক্ষে বৃহম্পতিবার (৭ মার্চ ২০২০) সকাল সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন লিডিং ইউনিভার্সিটি পরিবার।

পরবর্তীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে লিডিং ইউনিভার্সিটির উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) শ্রীযুক্ত বনমালী ভৌমিকের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘দানবীর রাগীব আলী ভবন’ মিলনায়তে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের উদ্দীপ্ত ঘোষণায় আসে স্বাধীনতার দিক-নির্দেশনা উল্লেখ করে দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, এই ঐতিহাসিক ভাষণটি ওই সময়ে সমগ্র বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা সংগ্রামে উজ্জীবিত করেছিল, শক্তি যুগিয়েছিল পাক হানাদারদের কবল থেকে দেশকে মুক্ত করার। বঙ্গবন্ধুর এই ঐতিহাসিক ভাষণই প্রেরণা যুগিয়েছে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে পরিচিত করার এবং উন্নতির পথে এগিয়ে নেয়ার। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন শান্তির পক্ষে সোচ্চার একজন ব্যক্তিত্ব। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আত্মার শান্তির জন্য আজ আমাদেরকে একসাথে কাজে করে দেশকে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করতে হবে। গড়ে তুলতে হবে সঠিক নেতৃত্ব।

লিডিং ইউনিভার্সিটি উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) শ্রীযুক্ত বনমালী ভৌমিক বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষন বাঙালি জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যায় মুক্তির লক্ষ্যে। ঐতিহাসিক এ ভাষণটি ইউনেস্কুর “ইন্টারন্যাশনাল মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড রেজিস্টার”-এ অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে “বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্যের” স্বীকৃতি লাভ করেছে, এটা আমাদের গর্বের বিষয়। তিনি উল্লেখ করেন, ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ আগামী নের্তৃত্ব ও বর্তমান তরুন প্রজন্মকে সঠিকভাবে দেশ ও জাতির উন্নয়নে কাজ করার অনুপ্রেরণা দিবে।

লিডিং ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো. কাওসার হাওলাদেরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদের ডীন প্রফেসর নাসির উদ্দিন আহমেদ। এতে আরও বক্তব্য রাখেন আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম. রকিব উদ্দিন, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সচিব মেজর (অব.) শায়েকুল হক চৌধুরী, পরিক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মোস্তাক আহমেদ দীন, রেজিস্ট্রার মেজর (অব) মো: শাহ আলম পিএসসি এবং প্রক্টর মো: রাশেদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে নির্মাণ প্রতিষ্ঠান হোমল্যান্ড এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী মো: আক্তারুজ্জামান, রাজনগর চা বাগানের ম্যানেজার তোফায়েল আহমেদসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন
  •  
  • 55
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত