মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

২রা শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী

নোটিশঃ
★করোনাভাইরাস থেকে হেফাজত থাকতে পড়ুন-'লা-ইলাহা ইল্লা আনতা সুবহানাকা, ইন্নি কুনতু মিনায যোয়ালিমীন'।। ★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
সিলেটের ‘ক্রীড়ানুরাগী’ লকবধারী ব্যক্তিরা আজ কোথায়?

সিলেটের ‘ক্রীড়ানুরাগী’ লকবধারী ব্যক্তিরা আজ কোথায়?

👉 জানলে আসতাম-মাহি উদ্দিন সেলিম

👉 বিশিষ্ট ক্রীড়া ব্যক্তিরা কোথায়-প্রশ্ন ভক্তদের

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সাকিবের কৃতিত্বে সারাদেশের সাথে আনন্দিত, আবেগাপ্লুত পরিবারের মানুষ, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-শুভাকাঙ্খীসহ পুরো সিলেটবাসী।

কিন্তু সাকিব সিলেটে আসার আনন্দঘন মুহুর্তে তার পাশে থাকলেন না সিলেটে নামের পাশে ‘বিশিষ্ট ক্রীড়ানুরাগী’ বা ‘ক্রীড়াব্যক্তিত্ব’ শব্দ থাকা কেউ! ছিলেন না কোনো ক্রীড়া সংস্থা-সংগঠনের নেতৃবৃন্দও। এতে অনেকেই হতাশা ও আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন।

মর্মাহত হয়েছেন সাকিবের মা-বাবাও।

বিমানবন্দরে তারা সাংবাদিকদের বলেন, সাকিব এখন শুধু আমাদের বা বালাগঞ্জের গর্ব না, পুরো সিলেটবাসীর রত্ন। তাকে বরণ করে নিতে সিলেটের কোনো ক্রীড়া সংস্থা বা ক্রিকেট সংগঠনের কেউ বিমানবন্দরে না আসায় আমরা হতাশ হয়েছি।

ভারত বধে অনন্য অবদান রাখা বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটার, সিলেটের বালাগঞ্জের কৃতিসন্তান সাকিব বিশ্বজয় করে প্রথমবারের মতো সিলেটে পা রেখেছে আজ (বৃহস্পতিবার)। দুপুর দেড়টায় সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে এসে পৌঁছেন সাকিব।

এসময় তাকে বরণ করতে সেখানে উপস্থিত হন সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদুস সামাদ চৌধুরী কয়েস। এছাড়াও সাকিবের বাবা গৌস আলী ও মা সেলিনা পারভিনসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্য, আত্মীয়-স্বজন এবং ভক্তবৃন্দ। এসময় সাকিবকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন তারা। পরে সাকিব চলে যান সিলেট নগরীস্থ তার চাচার বাসায়। সেখান থেকে তার গ্রামের বাড়ি বালাগঞ্জে।

এদিকে, সাকিব সিলেটে এসে পৌছার মুহুর্তে ওসমানী বিমানবন্দরে যাননি সিলেটের ‘বিশিষ্ট ক্রীড়ানুরাগী’ বা ‘ক্রীড়াব্যক্তিত্ব’ কেউ। সাকিবকে শুভেচ্ছা জানাতে উপস্থিত হননি কোনো ক্রীড়া সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সাকিবের শুভানুধ্যায়ী অনেকে মন্তব্য করে বলছেন, সিলেটে নামের পাশে ‘বিশিষ্ট ক্রীড়ানুরাগী বা ক্রীড়াব্যক্তিত্ব’ লকব জুড়ে দেয়া ব্যক্তিরা আজ কই? তারা যদি সাকিব সিলেটে এসে পৌঁছার মুহুর্তে তার পাশে থেকে শুভেচ্ছা জানাতেন তবে অনুপ্রাণিত হতো সাবিকসহ সিলেটের প্রতিভাবান তরুণ-কিশোর ক্রিকেটাররা।

এ প্রসঙ্গে সিলেট ক্রিকেটার্স এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম নাচন সিলেটভিউ২৪-কে বলেন, “সাকিব আসার বিষয়ে আমরা আসলে এতোটা ইনফর্ম না। আর তাছাড়া সিলেট ক্রিকেটার্স এসোসিয়েশন তো ছোট সংগঠন। যারা বিভাগীয় বা জেলা পর্যায়ে আছেন তারা থাকলে বোধহয় ভালো হতো।”

এ বিষয়ে সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট ডিস্ট্রিক্ট ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (ডিএফএ) সভাপতি মাহিউদ্দিন আহমদ সেলিম এ প্রতিবেদককে বলেন, “আমারা আসলে বিষয়টা জানি না। জানলে অবশ্যই যেতাম। তবে সাকিব সিলেটে আসার পর তার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ হয়েছে। তাকে বলা হয়েছে তার সুবিধামতো একটি তারিখ জানাতে। তার দেয়া তারিখ অনুযায়ী-ই সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে সাবিকবে সংবর্ধনা প্রদান করা হবে।”

Last Updated on

শেয়ার করুন
  •  
  • 30
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

সিলেটের বার্তা পরিবারঃ

এম. এ কাদির-বালাগঞ্জ প্রতিনিধি

লিটন পাঠান-মাধবপুর প্রতিনিধি

 

©সিলেটের বার্তা ২৪ কর্তৃক সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।