বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০২:০৫ পূর্বাহ্ন২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

২৫শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
সিলেট স্টেডিয়ামে ক্ষেপলেন মাশরাফি: বললেন-আমি কি চোর?

সিলেট স্টেডিয়ামে ক্ষেপলেন মাশরাফি: বললেন-আমি কি চোর?

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন মাফরাফি বিন মর্তুজা। ছবি: মো. আজমল আলী

নিজস্ব প্রতিবেদক:: সিলেটে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক।
মাশরাফি বলেন, ‘আত্মসম্মান বা লজ্জা…আমি কি চুরি করি মাঠে? আমি কি চোর? খেলার সঙ্গে লজ্জা, আত্মসম্মান…এসব আমি মেলাতে পারি না। এতো জায়গায় চুরি-চামারি হচ্ছে, তাদের লজ্জা নাই? আমি মাঠে এসে উইকেট না পেলে লজ্জা লাগবে? আমি কি চোর?’
আজ শনিবার দুপুরে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সমম্মেলনে অবসর প্রসঙ্গে একের পর এক প্রশ্নের উত্তর দিয়ে গেলেন মাশরাফি।
গেল জুনে ইংল্যান্ডে বিশ্বকাপে বিবর্ণ পারফরম্যান্সের পর থেকেই মাশরাফি বিন মুর্তজার অবসর নিয়ে গুঞ্জনের ডালপালা ক্রমেই বেড়েছে। মাশরাফি অবসর নিলেই যেন ‘বেঁচে যায় বাংলাদেশের ক্রিকেট’- রীতিমতো এরকম পরিস্থিতি। খোদ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতিই মাশরাফিকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় জানাতে জাঁকজমক আয়োজনের প্রস্তাবও দিয়েছেন।
এই যখন পরিস্থিতি, তখন মাশরাফি প্রায় নিরব শ্রোতা-দর্শক। মাঝে একবার বলেছেন, অবসর নিয়ে তিনি ভাবছেন না; যতোদিন উপভোগ করা যায়, ক্রিকেট চালিয়ে যেতে চান।
তবে কাল রবিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজই মাশরাফির অধিনায়কত্বের ‘শেষ সিরিজ’ হতে পারে, কয়েকদিন আগে বিসিবি সভাপতির এমন ইঙ্গিতে ফের ওঠে আলোচনার ঝড়। সেই ঝড়ের রেশ থাকলো সিলেটেও।
এখানেই থামলেন না বাংলাদেশের সফলতম অধিনায়ক। যোগ করলেন, ‘আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে, যে লজ্জা পেতে হবে! আমি পারিনি, আমাকে বাদ দিয়ে দেবে। ব্যাপারটি সিম্পল। কিন্তু লজ্জা-আত্মসম্মানবোধ আমি কার সঙ্গে দেখাতে যাব? আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলছি। আমি কি বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষের মানুষ? এখন যে কেউ পারফর্ম না করতেই পারে। তার যদি নিবেদন না থাকে, শৃঙ্খলা না থাকে, সেসব নিয়ে প্রশ্ন হতে পারে।’
গেল কিছুদিন ধরে ঠিকমতো কথা বলছে না মাশরাফির বল। সর্বশেষ দশ ম্যাচে কেবলমাত্র একটি উইকেট তাঁর। সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে কোনো উইকেট নেই। অবশ্য বিশ্বকাপে খেলা ওইসব ম্যাচে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট ছিল তাঁর।
মাশরাফি জানালেন, তিনি যদি পারফর্ম করতে না পারেন, তবে তাঁর সমালোচনা হলে সেটা মেনে নিতে তিনি প্রস্তুত। বললেন, ‘উইকেট না পেলে সমালোচনা হবেই। কথা যখন আসে লজ্জা-আত্মসম্মানের, তখন আমার প্রশ্ন থাকে। সমালোচনা করুক, সমস্যা নেই। কিন্তু ক্রিকেট খেলতে এসে আমি কি আত্মসম্মান বিসর্জন দিতে এসেছি? আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলছি নাকি চুরি-চামারি করছি?’
সংবাদ সম্মেলন ছিল আগামীকাল শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে। কিন্তু সিংহভাগ কথাই হলো মাশরাফির অবসর প্রসঙ্গে।
শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত