বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ০২:১২ পূর্বাহ্ন২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

২৫শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
ইউএনও’র আন্তরিকতায় মুগ্ধ মাধবপুরের আমজনতা

ইউএনও’র আন্তরিকতায় মুগ্ধ মাধবপুরের আমজনতা

লিটন পাঠান, মাধবপুর:: হবিগঞ্জের এক নারী ইউএনও’র আন্তরিকতায় মুগ্ধ হচ্ছেন স্থানীয় জনতা।

মাধবপুরের ঘরেঘরে তৃণমুল সেবা পৌঁছুাতে উপজেলা প্রশাসনের আন্তরিকতার বিকল্প নেই। উপজেলা প্রশাসন আন্তরিক হলেই জনসাধারণ পায় তার ন্যায্য অধিকার। অন্যথায় প্রশাসনের সঙ্গে দুরত্ব তৈরী হলে জনসাধারণরা হয় বঞ্চিত। ব্যতিক্রম মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাশনূভা নাশতারাণ এর কর্মকান্ড।

নজিরবিহীন দৃষ্টান্তস্থাপন করে জনপ্রিয় ও আস্থার স্থান দখল করে নিয়েছেন তিনি। বাল্যবিয়ে বন্ধ, খাদ্য ও প্রসাধনীতে ভেজাল বিরোধী অভিযান, পরিবেশ দূষণরোধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা, মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোরতা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমনে সরাসরি হস্তক্ষেপ, সাধারণ সুবিধা বঞ্চিতদের পাশে দাঁড়িয়ে সেবা প্রদান, শিক্ষার মানোন্নয়নের বিদ্যালয় ভিত্তিক পরিদর্শন ও যথা ব্যবস্থা গ্রহণ, রাস্তাঘাটের অনিয়ম হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা, সরকারি বরাদ্দ নিয়ে নয়-ছয় করার চেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থাসহ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাধবপুরের মূল সমস্যা অবৈধ বালি উত্তোলন বন্ধ করার সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

ইতোমধ্যে সাধারণ মানুষের ঘর বাড়ি দখল মুক্ত করেছেন। এসব ছাড়াও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আস্থা অর্জন করেছেন। রাজনৈতিক মহলেও রয়েছে তার ভুয়সী প্রশংসা।
এদিকে, করোনা ভাইরাস মহামারী ছড়িয়ে পড়লে সরকার ঘোষিত বিধি নিষেধ বাস্তবায়ন করতে তৎপর হয়ে ওঠেন তিনি। দিন রাত যে কোন প্রয়োজনে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে তাৎক্ষনিক সমাধান মুলক ব্যবস্থা নেন।

এছাড়াও যারা গরীব, দুঃখী ও নিম্ন আয়ের মানুষ তাদের ক্ষুধা নিবারনের জন্য বাড়ি বাড়ি উপস্থিত হয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছেন। গরীব দুস্থ অসহায় ও শ্রমজীবীদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম চলছে শুরু থেকেই। সহকারী কমিশনার (ভূমি) আয়েশা আক্তার ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মাধবপুর প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকদের সঙ্গে নিয়ে মানবিক হয়ে উপজেলার প্রতিটি অসহায়ের বাড়িতে বাড়িতে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন।

ঘরে আটকে পড়াদের খাবার পৌঁছে দিতে নিজের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোন নাম্বায় দিয়ে সরাসরি খাবার প্রাপ্তির ব্যবস্থা করেছেন খোঁজ নিচ্ছেন অসহায়দের। মাধবপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি মহিউদ্দীন আহম্মেদ বলেন, নিঃসন্দেহে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা মাধবপুরের জন্য সব বিষয়ে আন্তরিক।

সম্প্রতি মরণঘাতী করোনার দুর্যোগে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছেন দেখছি। যা আমাদের সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখায়। একজন নারী হয়েও রাত দিন মাধবপুরবাসীর সেবায় ইউএনও তাশনূভা নাশতারাণ যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করছেন তা মাধবপুরবাসী শ্রদ্ধাভরে মনে রাখবেন আশা। মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাশনূভা নাশতারাণ বলেন, অনুদানের পরিমানটা সামান্য।

তবে দেশের নাগরিক হিসেবে অসহায়ের পাশে দাঁড়ানো আমার দায়িত্ব কর্তব্য রয়েছে। তিনি বলেন, যদি সামর্থ থাকতো তাহলে দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য তা বিলিয়ে দিতাম। দেশের এই পরিস্থিতিতে যার যতটুকু সামর্থ আছে, তা নিয়ে অসহায় মানুষগুলোর পাশে এসে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে। মাধবপুরের সব সাপ্তাহিক হাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু সরকারের সেই নিষেধাজ্ঞা মানছে না কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। তবে এসব হাট বন্ধে আমরা কঠোর হতে হবে। সামাজিক দুরত্ব বজায় ও কোয়ারেন্টাইনে যারা আছেন তাদের নিয়মিত তদারকিতে নিয়োজিত রয়েছেন প্রশাসন।

শেয়ার করুন
  •  
  • 49
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত