রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১১:৩৪ অপরাহ্ন১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

২১শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

নোটিশ
★সিলেটের বার্তায় প্রতিনিধি/সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। তাই যোগাযোগ করুন নিম্নের মেইল অথবা নাম্বারে।
হঠাৎ কী হলো সিলেটি বধূ মাহির, কেনই বা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত

হঠাৎ কী হলো সিলেটি বধূ মাহির, কেনই বা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত

ফেসবুকে মাহির স্ট্যাটাস (বামে) বিয়ের সন্ধ্যায় একফ্রেমে স্বামীর সাথে (ডানে)।

হঠাৎ কী হয়ে গেল সিলেটি বধূ চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির।

হুট করে সংসার করবেন না বলে সিদ্ধান্তে এগিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এ নিয়ে ফেসবুকে খোদ মাহি পোস্ট করেছেন।

স্বামী নাকি কিছুই তাকে শেখাতে পারেন নি বলে অভিযোগ করেছেন মাহি।

গতকাল শনিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে বিচ্ছেদের খবর জানিয়ে এই অভিনেত্রী ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। মাহির সঙ্গে কথা হলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তাঁরা বেশ কিছুদিন ধরেই আলাদা থাকছেন। ব্যক্তিগত কিছু বিষয়ের বোঝাপড়া না হওয়ায় সম্প্রতি তাঁরা বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন।

বেশ কিছু দিন ধরেই মাহি ফেসবুকে মন খারাপের স্ট্যাটাস দিচ্ছিলেন। সেটা ছিল তাঁর ব্যক্তিগত ঘটনার অনুভূতি। গতকাল রাতে তিনি স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা।’

পরে মাহি শ্বশুরবাড়ির লোকদের কাছ থেকেও ক্ষমা চেয়েছেন। ঘটনার প্রসঙ্গে মাহির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের বিচ্ছেদ হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার কাছ থেকে আলাদা হয়েছি। এ মুহূর্তে আমার এর বেশি কিছু বলার মতো অবস্থা নেই।’

ঈদের সাত দিন আগে প্রথম আলোর সঙ্গে কথা হয় মাহিয়া মাহির। তখন তিনি জানান, তিনি এবং তাঁর স্বামী আলাদাভাবে নিজেদের বাসায় ঈদ করবেন। ঈদের নামাজ পড়ে তাঁর স্বামী অপু মাহমুদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাহিদের বাসায় আসবেন। পরে তাঁদের ঈদ শুরু হবে। শেষ পর্যন্ত এই ঈদে তেমনটা হয়নি। হঠাৎ এর মধ্যেই তাঁদের বিচ্ছেদের খবর এল।
আপনারা কবে থেকে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিলেন? মাহি প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা আলাদা হয়ে গেছি সত্য; কিন্তু কবে, কখন থেকে—এসব বলতে চাইছি না।’

মাহী ঈদ করতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে তাঁর গ্রামের বাড়িতে গিয়েছেন। সেখানে পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন। এই সময়ে তিনি কয়েকটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। একটি স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘এরপরও আমরা দুজন মুখোমুখি হব, কেউ কারও দিকে না তাকিয়েও পেট ভরে দুজন দুজনকে দেখব, ঘ্রাণ নেব, স্পর্শ করব।’

আবার কিছু স্ট্যাটাসে সবার সঙ্গে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করছেন মাহি। তাঁর কাছে জানতে চাইলাম বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হঠাৎ কেন নিলেন? তিনি বলেন, ‘মানুষের জীবনে অনেক কিছুই ঘটে। অনেক কিছু ভাগ্যের ওপর নির্ভর করে। এইটুকু বলব, আমি অপুকে সম্মান করি। আমাদের মধ্যে ব্যক্তিগত বোঝাপড়া নিয়ে কিছু বিষয়ে সমস্যা ছিল। যেটা হয়তো আমাদের সম্পর্ক টিকতে দিল না। হয়তো আরও কিছু বিষয় ছিল। আপনাদের কাছে অনুরোধ, তাঁর ও আমার কোনো অসম্মান হোক তেমন কিছু চাই না। আর আমরা কেন বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সেটা বলতে পারছি না।’

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





Sylheter#Barta@777

©এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব sylheterbarta24.com কর্তৃক সংরক্ষিত